শিরোনাম
◈ সুইস ব্যাংকের টাকার বিষয়ে তথ্য চেয়েছিল বিএফআইইউ, হাইকোর্টে প্রতিবেদন ◈ সরকারের বিদায়ঘণ্টা বাজছে: ভিপি নুর ◈ ডিএসসিসির ১০ চাকার ময়লার গাড়ি চুরি ◈ মধ্যরাতে ধরা প্রেমিক যুগল, শিকলে বেঁধে নির্যাতন ◈ জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার আজ ঢাকায় আসছেন  ◈ সালমান রুশদিকে ছুরিকাঘাত: হামলাকারীর বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ  ◈ বঙ্গবন্ধু মহান স্বপ্নদ্রষ্টা রাষ্ট্রনায়ক, বলেছেন বিশ্বনেতারা  ◈ পাবনায় ট্রাক চাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ◈ খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মাথায় পচা ডিম ভেঙে বন্ধুর জন্মদিন পালন, ৬ কিশোর আটক ◈ বুয়েটে ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের সভা, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ (ভিডিও)

প্রকাশিত : ২৭ জুন, ২০২২, ০৫:১০ বিকাল
আপডেট : ২৭ জুন, ২০২২, ০৫:১০ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিদ্রোহী ৯ মন্ত্রীর দপ্তর কেড়ে নিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী

রাশিদুল ইসলাম : ভারতের মহারাষ্ট্রে শিবসেনার ৯ বিদ্রোহী মন্ত্রীর দপ্তর কেড়ে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে সোমবার তার মন্ত্রিসভার নয়জন বিদ্রোহী মন্ত্রীর দপ্তর কেড়ে নেন। এই দপ্তরগুলো তার অনুগত অন্য মন্ত্রীদের মধ্যে বণ্টন করেছেন তিনি। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এক বিবৃতিতে বলা হয়, প্রশাসনিক কাজের সুবিধার্থে বিদ্রোহী মন্ত্রীদের দপ্তর অন্য মন্ত্রীদের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ও শিবসেনাপ্রধান উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছেন তার দলের বেশ কিছুসংখ্যক মন্ত্রী-বিধায়ক। শিবসেনার বিদ্রোহী মন্ত্রী-বিধায়কদের নেতৃত্বে আছেন একনাথ শিন্ডে। তিনি মহারাষ্ট্রের পূর্ত ও নগর উন্নয়নমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন।

শিন্ডের নেতৃত্বে শিবসেনার বিদ্রোহীরা পাঁচ দিন ধরে বিজেপিশাসিত আসাম রাজ্যের গুয়াহাটি শহরের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে অবস্থান করছেন। শিন্ডের দাবি, তার প্রতি মহারাষ্ট্রের ৫০ জনের বেশি বিধায়কের সমর্থন রয়েছে। তাদের মধ্যে প্রায় ৪০ জন শিবসেনার বিধায়ক। 

শিবসেনার ১৬ জন বিদ্রোহী বিধায়ককে ইতিমধ্যে ‘শোকজ’ নোটিশ দিয়েছেন মহারাষ্ট্র বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার নরহরি। দলত্যাগ রোধ আইন অনুযায়ী, কেন এই ১৬ জন বিধায়কের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, সে বিষয়ে তাঁদের কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

বিদ্রোহীরা বলছেন, তারা চান, শিবসেনা তার ‘অস্বাভাবিক মিত্র’ কংগ্রেস ও এনসিপি ছেড়ে বেরিয়ে আসুক। শিবসেনা তার ‘স্বাভাবিক মিত্র’ বিজেপির সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার চালাক।
শিন্ডে-অনুগামীদের দাবি, ‘অস্বাভাবিক’ জোটের কারণে শিবসেনার ক্ষতি হচ্ছে। লাভ হচ্ছে কংগ্রেস-এনসিপির। শিবসেনা বরাবর হিন্দুত্ববাদী ও জাতীয়তাবাদী দল। হিন্দুত্ববাদ থেকে সরে এসে শিবসেনা তার চরিত্র হারিয়ে ফেলছে।

মহারাষ্ট্র বিধানসভার ভোট হয় ২০১৯ সালের অক্টোবরে। ২৮৮ আসনবিশিষ্ট বিধানসভায় বিজেপি পায় ১০৬ আসন। শিবসেনা পায় ৫৬ আসন। শারদ পাওয়ারের এনসিপি পায় ৫৪ আসন। কংগ্রেস পায় ৪৪ আসন।

মুখ্যমন্ত্রিত্বের দাবিতে অনড় থেকে শিবসেনা শেষ পর্যন্ত বিজেপির সঙ্গ ছেড়ে এনসিপি ও কংগ্রেসের সমর্থনে গঠন করে ‘মহা বিকাশ আগাড়ি’ জোট সরকার। মুখ্যমন্ত্রী হন শিবসেনার প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। আড়াই বছর কাটতে না কাটতেই এ সরকার বিদ্রোহের মুখে পড়ল।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়