Skip to main content

সুস্থ হয়ে রোববার দেশে ফিরছেন কাজী হায়াৎ

হাসপাতালে নিয়মিত চেকআপ ও ডাক্তারের পরামর্শে ঔষুধ প্রয়োগে সুস্থ হয়েছেন কাজী হায়াৎ। কোনও প্রকার অস্ত্রপাচার করানোর প্রয়োজন হয়নি তার। তার শরীরে যে রগগুলোতে রক্তাচলা বন্ধ ছিল, চিকিৎসা নেওয়ার পর আবার সচল হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। ডাক্তারের পরামর্শে ছেলের বাসায় অবস্থান করছেন কাজী হায়াৎ। বিষয়টি জানিয়েছেন দেশের বরেণ্য নির্মাতা কাজী হায়াতের ছেলে চিত্রনায়ক কাজী মারুফ। 

 এ বিষয়ে মারুফ বলেন, ‘বাবার অবস্থা অনেক ভালো। এখন তিনি বাসায় আছেন। আল্লাহর রহমতে তিনি ভালো আছেন। আগামীকাল রোববার তিনি দেশে যাবেন। সেই প্রস্তুতি চলছে এখন। দেশে গিয়ে সপ্তাহ দুয়েক বিশ্রাম নিয়ে তার নতুন সিনেমা ‘বীর’ এর শুটিংও শুরু করবেন।’
 
গত ২২ ডিসেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য নিউইয়র্কে যান। সেখানকার একটি হাসপাতালে দুই সপ্তাহ ধরে চিকিৎসা নেন। হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তার। তার ঘাড়ের রক্তনালিতে ব্লক ধরা পড়ে। এর মাঝে সামাজিক মাধ্যমে তার মৃত্যুর খবরের গুজব ছড়ায়। সেটির জবাব অবশ্য তিনি ফেসুবুকে লাইবে এসে দেন। 

 এর আগে গত বছরের মার্চে নিউইর্য়কের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন কাজী হায়াৎ। সম্প্রতি আবারও চিকিৎসার জন্য একই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। ২০০৪ সালে কাজী হায়াতের হৃৎপি-ে দুটি রিং বসানো হয়েছিল এবং ২০০৫ সালে ওপেন হার্ট সার্জারি করা হয় তাঁর। এরপর আবারও সমস্যা দেখা দিলে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করে তিনি। সেসময় প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার জন্য থেকে ১০ লাখ টাকা অনুদান দেন।