Skip to main content

সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর ব্যর্থতা, নতুন শিক্ষমন্ত্রীর চ্যালেঞ্জ

Article Highlights

বাংলাদেশের গত এক দশকে যে কয়টি মন্ত্রণালয় বিতর্কিত হয়েছে, নিঃসন্দেহে শিক্ষা তার অন্যতম। তবে নতুন শিক্ষামন্ত্রী তা কাটিয়ে উঠবেন বলে আশা প্রকাশ করেন লেখক ও কলামিস্ট আমীন আল রশীদ। 

বাংলাদেশের গত এক দশকে যে কয়টি মন্ত্রণালয় বিতর্কিত হয়েছে, নিঃসন্দেহে শিক্ষা তার অন্যতম। তবে নতুন শিক্ষামন্ত্রী তা কাটিয়ে উঠবেন বলে আশা প্রকাশ করেন লেখক ও কলামিস্ট আমীন আল রশীদ। 

শুক্রবার জাগো নিউজের সাথে আলাপকালে তিনি একথা লিখেছেন।  

আমীন আল রশীদের ভাষায়, এক সময়ের বামপন্থি নেতা, নুরুল ইসলাম নাহিদের সততা নিয়ে কারো প্রশ্ন ছিল না। কিন্তু গত এক দশকে যে কয়টি মন্ত্রণালয় বিতর্কিত হয়েছে, নিঃসন্দেহে শিক্ষা তার অন্যতম। পাবলিক ও নিয়োগ পরীক্ষায় নকল, প্রশ্ন ফাঁস, ভর্তি জালিয়াতি, জিপিএ ফাইভের নামে অসুস্থ প্রতিযোগিতার চর্চা এবং পিইসি ও জেএসসি নামে শিশুদের পাবলিক পরীক্ষা চালু করে পড়ালেখাকে আতঙ্কের বিষয়ে পরিণত করা হয়েছে তার আমলেই। যদিও যেসব অনিয়ম হয়েছে, তার অনেকগুলোই আইনশৃঙ্খলার সাথে যুক্ত। কিন্তু তারপরও শিক্ষান্ত্রী হিসেবে মি. নাহিদ এগুলোর দায় এড়াতে পারেন না।

এবার শিক্ষামন্ত্রী করা হলো ডা. দিপু মনিকে যিনি বাংলাদেশের প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনিও শিক্ষিত ও সজ্জন হিসেবেই পরিচিত। ফলে শিক্ষাব্যবস্থায় এখন যে অরাজকতা চলছে বলা যায়, সেই অরাজকতা দূর করতে তিনি কতটা পদক্ষেপ নিতে পারবেন, তা বলা কঠিন। কারণ শিক্ষা এখন একটি বিশাল ব্যবসা।

এই ব্যবসার সাথে বহু মাফিয়া জড়িত। ফলে তার নিজের আন্তরিকতা এবং সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা যতই থাকুক, এই মাফিয়া তথা দুষ্টুচক্র ভেদ করে তিনি কতটা কী করতে পারবেন তা বলা মুশকিল। তবে দিপু মনির সঙ্গে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন তরুণ নেতা মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল; চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে। যিনি এরইমধ্যে নিজের যোগ্যতা ও দক্ষতার সাক্ষর রেখেছেন।

টেলিভিশনে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তার কথাবার্তা শুনে মনে হয়েছে, তিনি ভালো কিছু করতে চান। সুতরাং দিপু-নওফেল জুটি যদি দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় একটা গুণগত পরিবর্তন আনতে পারেন, বিশেষ করে শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ বন্ধ তথা বেসরকারি স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে টাকার খেলা বন্ধ করতে পারেন, শিক্ষাকে ব্যবসা নয় বরং অধিকার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার ক্ষেত্রে মোটামুটি একটা উদ্যোগ নিতে পারেন, শিক্ষার্থীদের কাস্টমার বানানোর ভয়াবহ প্রবণতা দূর করার ক্ষেত্রে উদ্যোগ নিতে পারেন, জাতির কাছে তারা নমস্য হয়ে থাকবেন।

অন্যান্য সংবাদ