Skip to main content

মেসির নেতৃত্ব কেড়ে নেয়া দরকার : ম্যারাডোনা

কয়েক বছর ধরেই দিয়াগো ম্যারাডোনা ও লিওনেল মেসির সম্পর্কটা ভালো যাচ্ছে না। গত বছর ম্যারাডোনা পরিষ্কার বলে দেন, মেসির মধ্যে একজন প্রকৃত নেতা খোঁজার মানে হয় না। 

মেক্সিকোর এক অনুষ্ঠানে (লা আল্টিমা পালাব্রা) সে সময় কিংবদন্তি ম্যারাডোনা মন্তব্য করেন, ও নিজে অধিনায়ক হিসেবে মাঠে থাকতে চায়। কিন্তু সতীর্থদের সঙ্গে কথা বলার আগে চলে যায় ‘প্লে স্টেশন’ খেলতে। তাই আমার পক্ষে এই বিষয়টা নিয়ে কথা বলা খুব কঠিন। একই সঙ্গে যে ফুটবলার অধিনায়ক হিসেবে ম্যাচের আগে বিশবার টয়লেটে যায়, তার সম্পর্কে কিছু বলাও কঠিন। দরকার, এখনই ওর নেতৃত্ব কেড়ে নেওয়া। কারণ অধিনায়ক হিসেবে যে ভূমিকায় মেসিকে দেখতে চাই সেটা কখনও মাঠে নেমে ও করে দেখাবে না।

ম্যারাডোনা এতোটা বললেও মেসি কিন্তু বিষয়টি নিয়ে কখনও মুখ খোলেননি। বরং ম্যারাডোনা নিজেই পরে সুর বদলে বলেন, মোটেই এ রকম কিছু তিনি বলতে চাননি। এমনকি ব্যাপারটা মিটিয়ে ফেলতে মেসির সঙ্গে বার্সেলোনায় ডিনার করার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছিলেন। 

মজার ব্যাপার, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি একই কথা বললেন। আর্জেন্টিনার এক দৈনিকে তার মন্তব্য, ‘লিওকে মনপ্রাণ দিয়ে ভালবাসি। কোনও সন্দেহ নেই, ও ফুটবলের বিস্ময়। কিন্তু ওরা (আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশন) ওকে নেতা বানাতে চায়। অথচ কোনও দিনই লিও নেতা হয়ে উঠতে পারবে না। চিরকালই ও নিজের খেলা, পরিবার নিয়ে থাকতে চায়। অন্য কিছু নয়।’
সম্প্রতি মেসির সমালোচনা করেন ব্রাজিলীয় কিংবদন্তি পেলেও। দাবি করেন, মেসির একটাই দক্ষতা। সেটা, বাঁ পায়ে ফুটবলটা ঠিকঠাক খেলে দেওয়া। এমনকি আর এক ব্রাজিলীয় মহাতারকা জিকোও মন্তব্য করেন, পেলের সঙ্গে মেসির তুলনাই হতে পারে না। এমনকি ম্যারাডোনাও তার থেকে এগিয়ে থাকবেন।

এতো সমালোচনার পরেও মেসি নিজের খেলাটা খেলে যাচ্ছেন। তবে সেটা তার ক্লাব বার্সেলোনায়। তবে শোনা যাচ্ছে, রাশিয়া বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা বাজেভাবে ব্যর্থ হলেও মেসি অচিরেই জাতীয় দলে ফিরবেন। আর সেটা হতে যাচ্ছে এ’বছরের কোপা আমেরিকাতে।  -গোল ডটকম