Skip to main content

প্রিমিয়ার লিগের জন্য প্রস্তুত ময়মনসিংহের মাঠ

ফেডারেশন ও ক্লাবগুলোর মধ্যে কিছু ঝামেলার কারণে বারবার পিছিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল। নির্ধারিত সূচি থাকলেও তা কয়েকবার পিছিয়েছে। এমনকি কবে শুরু হবে তা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে তার আগেই প্রিমিয়ার লিগের জন্য প্রস্তুত ময়মনসিংহ ভেন্যু। ঢাকার বাইরের প্রথম ভেন্যু হিসেবে রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে সংযোজন হয়েছে আইস বাথ। খেলোয়াড়দের ড্রেসিংরুমও তৈরি হয়েছে বিদেশি স্টাইলে। প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কারকৃত এই মাঠ সবার আগে ফুটবল ফেডারেশন ও ক্লাবগুলোর কাছ থেকে পেয়েছে পাশ মার্ক।

রাজধানী ছাড়িয়ে ময়মনসিংহ শহর। ঢাকার জানজট পেরিয়ে ১১৩ কিলোমিটারের পথ পাড়ি দিতে সময় লাগে প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা। এক মৌসুম বিরতির পর আবারো এই ভেন্যুতে ফিরছে পেশাদার লিগের ফুটবল ম্যাচ। আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের হোম ভেন্যু প্রিমিয়ার লিগের আগে কতোটা প্রস্তুত তাই দেখতে ছুটে চলা জগদীশ চন্দ্র বসু, জয়নুল আবেদীনের জন্ম শহরে।

ভাষা সৈনিক রফিক উদ্দীন ভূঁইয়ার নামে গড়ে ওঠা স্টেডিয়ামটির বাইরের চেহারা অন্য জেলা স্টেডিয়ামগুলোর মতই। তবে চমক ভেতরে। ১৬ হাজার ধারণক্ষমতার গ্যালারি আর মেইন স্ট্যান্ড যেমন প্রস্তুত ঠিক তেমনি মাঠও। ফেলা হয়েছে নয় হাজার স্কয়ার ফিট মাটি। রোপন করা হয়েছে ঘাস।

সাড়ে তিন লাখ টাকা ব্যয়ে বানানো হয়েছে ডাগ আউট। মেইনস্ট্যান্ড-এর ছাদে আলাদা ছাউনি দিয়ে প্রস্তুত অস্থায়ী প্রেস বক্সও। অভাব শুধু ভিআইপি বক্সের। স্থানীয় জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সাথে মাঠ প্রস্তুত করতে সম্মিলিতভাবে কাজ করছে দুই ক্লাব। 

স্টেডিয়ামের সবচেয়ে বড় চমক ড্রেসিংরুম। যা সেজেছে ইংলিশ লিগের লকার রুমের আদলে। আরামবাগের উয়েফা এ লাইসেন্সধারী কোচ মারুফুল হকের ডিজাইন ও পরামর্শে প্রস্তুত হয়েছে দুটি ড্রেসিংরুম। প্রতিটিতে রয়েছে আইস বাথের আলাদা ব্যবস্থা। এখন শুধুই অপেক্ষা কিক অফের। দেশের ফুটবলের শীর্ষ আসর দিয়েই আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনের পথে এগিয়ে যেতে চায় ব্রহ্মপুত্র পাড়ের জনপদ।