Skip to main content

জামায়াতের বিচারে আইন সংশোধনের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সিনিয়র আইনজীবীরা

যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে জামায়াতের বিচারে সরকারের আইন সংশোধনের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন, সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদসহ জ্যেষ্ঠ আইনজীবীরা। এদিকে দীর্ঘ ২২ মাস ধরে আপিল বিভাগে শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে, ১৯টি মামলা। তবে এক সপ্তাহের মধ্যে কাজ শুরুর কথা জানালেন অ্যাটর্নি জেনারেল। 

আইনমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নেয়ার দিন রাতেই ‘চ্যানেল ২৪’ এ আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছিলেন, যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে জামাতের বিচারে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইন দ্রুত সংশোধন করবে সরকার। বিষয়টি নিয়ে সচিবালয়েও কথা বলেন তিনি।

দল হিসেবে জামাতের এ বিচারের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সিনিয়র আইনজীবীরা। বলছেন, সাধারণ মানুষও চায় যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে জামাতের বিচার দ্রুতই হয়ে যাক।

এদিক প্রায় ২২ মাস ধরে আপিল বিভাগে শুনানি বন্ধ রয়েছে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার। সবশেষ ২০১৬ সালের মার্চে মীর কাসেম আলীর মামলা নিষ্পত্তি হয়। এরপর আপিল বিভাগে শুনানি না হওয়ায় জমে গেছে ১৯ টি মামলা। 
সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বলছেন দ্রুতই এ সব মামলা শুনানি শুরু হওয়া দরকার।

সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বলেছেন, যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে জামায়াতের বিচারে সরকারের আইন সংশোধনের উদ্যোগটা অতন্ত প্রসংশোনীয়। যত তারাতারি সম্ভব এই বিচারটি করা উচিত। অপর দিকে যে মামলাগুলো জমে গেছে তার জন্য আইনজীবী যারা আছেন, তারা যদি জুরালো ভূমিকা রাখেন তাহলে এই মামলাগুলোর শুনানি শেষ হবে। 

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন বলেছেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারটি সময়ের দাবি। একাদশ সংসদ নির্বাচনে ২৫ জন দলের পরিচয়ে নির্বাচনের গেলেও তাদের জনগণ পরাজিত করেছেন এবং তাদের পরিচয় সকলের কাছে তুলে ধরেছেন। এতো দিন বিচারকের সংকট ছিলো যার কারণে মামলাগুলো জমেছে। তবে এখন বিচারকের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আপিল শুনানি ফের শুরু হবে। 


জামাতের বিচার আইন সংশোধন হলেই কাজ শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা মাহবুবে আলম। তিনি বলেন, শুধু জামায়াতের ওই সময়ের নেতৃবৃন্দ না, জামায়াতকে দল হিসেবে বিচার করা উচিত। আমাদের আইনমন্ত্রি যথার্থই বলেছেন, জামায়াতের বিচারে আইন সংশোধনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এটি সঠিক সিদ্ধান্ত এবং আইন সংশোধন হলেই এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ এবং আদালতে যা যা করা প্রয়োজন আমার পক্ষ থেকে, আমি সবই করবো।

অন্যান্য সংবাদ