Skip to main content

অস্ট্রেলিয়ায় রাজনৈতিক আশ্রয় পাচ্ছেন আলোচিত সৌদি তরুণী


পরিবারের হাত থেকে বাঁচতে থাইল্যান্ডে পালিয়ে আসা ১৮ বছর বয়সী সৌদি তরুণী রাহাত মোহাম্মদ আল-কুনুন অবশেষে অস্ট্রেলিয়ায় আশ্রয় পেতে যাচ্ছেন। শুক্রবার একজন থাই অভিবাসন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সিএনএন 

থাইল্যান্ডের ইমিগ্রেশন পুলিশ প্রধান সুরাচাতে হাকপার্ন সিএনএনকে বলেন, ‘হ্যাঁ অস্ট্রেলিয়া তার আশ্রয় অনুমোদন করেছে।তবে সে ঠিক কোন জায়গায় যাচ্ছে তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য আমরা অপেক্ষায় রয়েচি।’ হাকপার্ন আরো জানিয়েছেন, কানাডাও তাকে আশ্রয় দিতে চেয়েছে। তারা তার সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন। বুধবার জাতিসংঘ কুনুনের নিরাপত্তা নিশ্চিতে অস্ট্রেলিয়াকে আহ্বান জানায়। তবে কানাডাও তার বিষয়টি ভাবায় তার নিরাপত্তা শঙ্কা অনেকটাই কমে গেলো। হাকপার্ন বলেন, ব্যাংককের অজানা অবস্থানে থাকা কুনুন তার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরপরই দ্রুত ব্যাংকক ত্যাগ করবেন। তিনি বলেন, ‘আমরা তার প্রয়োজনীয় সকল নিরাপত্তাই প্রদান করছি।’ অস্ট্রেলিয়া এবং কানাডা কেউই এই বিষয়ে সিএনএন এর কাছে কোন মন্তব্যে রাজি হয়নি। 

পরিবার থেকে বাঁচতে কুয়েত থেকে ব্যাংকক পালিয়ে আসেন ১৮ বছর বয়সী তরুণী কুনুন। তার দাবী তিনি ইসলাম ত্যাগ করায় তার পরিবার তাকে হত্যা করবে। সে অস্ট্রেলিয়া যেতে ইচ্ছুক ছিলো। থাই কর্তৃপক্ষ তাকে মধ্যপ্রাচ্যে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করলে সে নিজেকে একটি হোটেলের কক্ষে আটকে রাখে। এক পর্যায়ে সে বিশ^ গণমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে জাতিসংঘ তাকে শরণার্থী মর্যাদা প্রদান করে। 
 

অন্যান্য সংবাদ